যেকোনো প্রয়োজনে যোগাযোগঃ

১. রাকিব– 01638032577

২. সবুজ মুন্সি – 01772944676

 

#ট্যুর_প্ল্যানঃ

২৭/০২/২০২০ – ঢাকা থেকে সন্ধ্যা ৭টার ট্রেনের শোভন চেয়ারে অথবা নন-এসি বাসে খুলনার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু। সন্ধ্যায় থাকছে হালকা স্ন্যাক্স।

২৮/০২/২০২০– ভোর ৫:৩০ – ৬টার মধ্যে ট্রেন বা বাস থেকে নেমে লঞ্চে প্রবেশ।

* সকালে যাত্রা শুরু সুন্দরবনের প্রথম ট্যুরিস্ট স্পট করমজলের উদ্দেশ্যে। সকাল ৮-৮:৩০ এর মধ্যে সকালের নাস্তা পরিবেশন করা হবে।

* দুপুরে লাঞ্চ করে আমরা করমজলে প্রবেশ করবো। এখানে আমরা ১:৩০ – ২ ঘন্টা সময় অতিবাহিত করে লঞ্চে ফিরে এসে হাড়বাড়িয়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবো।

* হাড়বাড়িয়া থেকে ঘুরে এসে কচিখালি অথবা কটকা’র উদ্দেশ্যে যাত্রা এবং রাতে কচিখালি অথবা কটকা ফরেস্ট অফিসের সামনের খালে নোঙর। ডিনার করে তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়বো সবাই যার যার কেবিনে।

২৯/০২/২০২০ – খুব সকাল বেলা নাস্তা করে ট্রলারে করে কচিখালি অথবা কটকা বিচের উদ্দেশ্যে যাত্রা। কচিখালি, কটকা বিচ, জেটি ঘাট, টাইগার টাওয়ার, কটকা অফিস পাড়া, টাইগার টিলা এবং বনের মধ্যে কিছুক্ষণ হাইকিং করে দুপুরের মধ্যে লঞ্চে ফেরত আসবো। বিকেলের মধ্যে আমরা পৌঁছে যাবো দুবলার চরে।

* এদিন সন্ধ্যাটা দুবলার চরে ঘুরে আর শুটকি কেনা শেষ করে আমরা রাতে এসে নোঙর করে থাকবো নিকটস্থ কোনো ফরেস্ট অফিসের সামনে। বারবিকিউ ডিনার পরিবেশন করা হবে এই রাতে।

০১/০৩/২০২০ – এদিন হিরণ পয়েন্ট ঘুরে আমরা ফিরতি পথে রওয়ানা দিবো খুলনার উদ্দেশ্যে।

* সকালের নাস্তা, দুপুরের লাঞ্চ ও রাতের ডিনার লঞ্চেই পরিবেশন করা হবে।

* রাতের বাসে বা ট্রেনে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা।

০২/০৩/২০২০– আবহাওয়া ও পরিবেশ অনুকূলে থাকলে ভোর বেলাতেই ঢাকায় প্রবেশ।

 

#খরচঃ ৮০০০/- টাকা মাত্র!

#সদস্যঃ ৩৬ জন।

 

#ভ্রমন_স্থানঃ ১। করমজল, ২। হাড়বাড়িয়া, ৩। কচিখালি, ৪। কটকা – বিচ, টাইগার টাওয়ার, অফিস পাড়া, টাইগার টিলা, ৫। দুবলার চর, ৬। হিরণ পয়েন্ট, ৭। কোকিলমণি এবং সময় ও পরিবেশ অনুকূলে পেলে ৩কোণা আইল্যান্ড।

 

#খাবার_মেন্যুঃ

১য় দিনঃ

★ সকালের নাস্তাঃ পরটা, সবজী, ডিম, হালুয়া।

★ দুপুরের খাবারঃ সাদা ভাত, সবজী, ভর্তা, পারশে মাছ, চুই ঝাল খাশী, ডাল, রসগোল্লা।

★ রাতের খাবারঃ ফ্রাইড রাইস, চাইনিজ ভেজিটেবল, ফিস্ ফ্রাই, চিকেন ফ্রাই, সালাদ, কোক।

 

২য় দিনঃ

★ সকালের নাস্তাঃ খিচুড়ি, ডিমের মালাইকারী, বেগুন ভাজি, ইলিশ ফ্রাই, সালাদ, আচার।

★ দুপুরের খাবারঃ সাদা ভাত, ভর্তা, সবজি, সামুদ্রিক মাছ, কাতলা মাছ, ছানার জিলাপি, ঘন ডাল।

★ রাতের খাবারঃ লুচি, চিকেন বার-বি-কিউ, ফিস বারবিকিউ, ডাল মাখনা, রায়তা সালাদ, কোক।

 

৩য় দিনঃ

★ সকালের নাস্তাঃ সাদা ভাত, আলুর দম, ভর্তা, ডিমভাজি, ডাল।

★ দুপুরের খাবারঃ পোলাও, চিংড়ি মাছ, চিকেন রোস্ট, ভেজিটেবল, মুড়িঘন্ট, দই।

★ রাতের খাবারঃ সাদা ভাত, সবজী, মাছ, ডাল।

 

★ বনে হাঁটার সময়ে জন প্রতি ৫০০ML মিনারেল ওয়াটার ও হালকা স্ন্যাক্স দেওয়া হবে।

 

ভ্রমনের সময় আপনারা যা পাচ্ছেনঃ

★ ঢাকা-সুন্দরবন-ঢাকা সমস্ত পরিবহন খরচ।

★ ১ম দিন সকাল থেকে ৩য় দিন রাত পর্যন্ত সকাল, দুপুর ও রাতের খাবার।

★ ঘুমানোর জন্য কেবিনে জনপ্রতি ১টি বালিশ এবং ১টি কম্বল।

★ ভ্রমনের জন্য বন বিভাগের অনুমতি ও ট্যাক্স প্রদান।

★ সার্বক্ষণিক ২জন এক্সপার্ট গাইড সেবা।

যা যা পাচ্ছেন নাঃ

★ যেকোনো ধরণের ব্যক্তিগত খরচ ।

★ ভ্রমনের সময় সাথে যা আনবেনঃ

* ছোট সাইজের ট্রাভেল ব্যাগ

* টেলিটক সিম (মাঝেমধ্যে নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় বেশ ভালো)

* প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্র, তোয়ালে বা গামছা, স্যান্ডেল, কেডস

* টুথপেষ্ট+ব্রাশ+সাবান+শ্যাম্পু

কিছু নির্দেশাবলীঃ

১. সীট খালি থাকা সাপেক্ষে ২৪ ফেব্রুয়ারী মধ্যে ৪০৮০/- টাকা  বিকাশের মাধ্যমে অথবা ব্যাংক একাউন্টে (অফেরতযোগ্য) অগ্রীম দিয়ে নিজ নিজ আসন কনফার্ম করতে পারবেন।

২. টাকা পাঠানোর নিয়মঃ আগ্রহীরা ৪০৮০/= টাকা ০১৭৭২৯৪৪৬৭৬ পার্সোনাল নম্বরে বিক্যাশ করে আপনার যাত্রা কনফার্ম করতে পারবেন। bKash করেই সাথে সাথে ঐ নম্বরে ফোন করে নিজের নাম এবং Transaction Id জানাবার পরেই আপনার আসন কনফার্ম হবে। অথবা অফিসে এসে দেখা করে টাকা দিতে পারেন।

(বিঃ দ্রঃ এডভান্স এর টাকা দিয়ে আপনার সিট কনফার্ম হবার পর, আপনি যদি কোন কারনে না যেতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনার রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে অন্য কেউ কনফার্ম করলে অবশ্যই আপনার টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। অন্যথায় এডভান্স এর টাকা অফেরতযোগ্য।)

বিঃদ্রঃ বুকিং মানি কনর্ফাম সাপেক্ষে বাসের ১ম সারি থেকে সিট বিন্যাস হবে ।

CONTACT DETAILS:
If you have a story to share or a question that has not been answered on our website, please get in touch with us via contact details listed below.

Sky View Trade Vally, (11th Floor), Flat No: B10, 66/1, VIP Road, Naya Paltan, Dhaka-1000